মমতার নয়া ভাবনায় চলচ্চিত্র উৎসবের শুভসূচনা হতে চলেছে!

নিউজ ডেস্ক : আগামী ১০ নভেম্বর নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে উদ্বোধন হতে চলা আন্তর্জাতিক এই চলচ্চিত্র উৎসব এবার ২৪ বছরে পদার্পণ করছে। ‘বিশ্বের সিনেমা বাংলার আঙিনায়’— শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি ঘিরে এখন সাজ সাজ রব ইন্ডোরের পাশাপাশি নন্দন, রবীন্দ্র সদন, স্টার থিয়েটার, নজরুল তীর্থ সহ গোটা শহর জুড়েই। কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের এবারের অন্যতম আকর্ষণ— বাংলা সিনেমার ১০০ বছর। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে চলচ্চিত্র উৎসবে শতবর্ষের বাংলা সিনেমার জন্য থাকছে আলাদা প্যাভেলিয়ন। এবার থিম কান্ট্রি অস্ট্রেলিয়া। উৎসব চলবে ১৭ নভেম্বর পর্যন্ত।

মুখ্যমন্ত্রীর বিশেষ আমন্ত্রণে এবারও উৎসবের মঞ্চ আলো করে উপস্থিত থাকছেন অমিতাভ বচ্চন জয়া বচ্চন। উপস্থিত থাকবেন বাংলার ‘ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর’ শাহরুখ খান, সঞ্জয় দত্ত, শর্মিলা ঠাকুর আর মহেশ ভাট। কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব যে ক্রমেই বিশ্ব সিনেমা মহলে ‘সাড়া’ জাগাচ্ছে, তার প্রমাণ মিলছে এবারের বিদেশী অতিথিদের তালিকা থেকেই। ইরানের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা মাজিদ মাজিদির তৈরী ছবি এর আগে উৎসবে প্রদর্শিত হলেও, এবারই প্রথম উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকছেন স্বয়ং মাজিদি। থাকছেন চলচ্চিত্র সম্পাদনার ক্ষেত্রে বিশ্বজোড়া খ্যাতি সম্পন্ন অস্ট্রেলিয়ার জুলিয়ান এলিজাবেথ বিলকক। রোমিও-জুলিয়েট এবং মুলা রুজ-এর মতো কালজয়ী সিনেমার সম্পাদনা করেছিলেন বিলকক। উপস্থিত থাকতে সম্মতি জানিয়েছেন পরিচালক ফিলিপ নয়সে এবং সায়মন ডেকারও। সূত্রের খবর, গতবার ৬৫টি দেশের ১৪২টি সিনেমা ১৯টি ক্যাটিগরিতে ভাগ করে চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয়েছিল। এবার সেই সংখ্যাটা বাড়ছে।

ঋত্বিক ঘটক, সত্যজিৎ রায়, মৃণাল সেনের ছবির প্রদর্শন তো থাকছেই, সঙ্গে থাকছে বাংলা সিনেমার গোটা একটা প্যাভেলিয়ন। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে চলচ্চিত্র উৎসব এখন একটা আন্তর্জাতিক মঞ্চ। সেই মঞ্চে ঐতিহ্যের বাংলা সিনেমার ইতিহাস তুলে ধরাটাও গর্বের। দর্শকদের সামনে তুলে ধরা হবে গত ১০০ বছরে বাংলা সিনেমার বিবর্তনের ইতিহাস এবং বহু পুরনো ছবি।

 

Please follow and like us:
1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *