Thursday, April 26, 2018
Home > রাজ্য > টাকা তুলতেই হবে,তাই দাম নেই জীবনের!দূর্ঘটনা শুধু সময়ের অপেক্ষা

টাকা তুলতেই হবে,তাই দাম নেই জীবনের!দূর্ঘটনা শুধু সময়ের অপেক্ষা

কমল মজুমদার :সুতি :সময় বাচাঁতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলছে পারাপার। রঘুনাথগঞ্জ ও জঙ্গিপুর শহরের মধ্যে ভাগীরথী নদী প্রবাহিত হয়েছে। এক সময়ে দুই শহরের একমাত্র যোগাযোগের মাধ্যম ছিল সদরঘাট ও গাড়িঘাটের নৌকায় চড়ে পারাপার হওয়া। রঘুনাথগঞ্জ ও জঙ্গিপুর শহরকে দ্বিখণ্ডিত করেছে এই ভাগীরথী নদী। সেতু নির্মাণের দাবীতে সরব হন। শুরু হয় জোরদার নাগরিক আন্দোলন অবশেষে স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি মেনে ২০০৯ সালে গড়ে তোলা হয়,রঘুনাথগঞ্জ ও জঙ্গিপুর ভাগীরথী নদী উপরে সেতু।

সেতু উপর দিয়ে শুরু হয় উমরপুর, রঘুনাথগঞ্জ, জঙ্গিপুর, লালগোলা ও বহরমপুর রাজ্য সড়ক। সেতু চালু হলেও আজও সময় বাচাঁতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নৌকায় নদীর উপর পারাপার চলছে সদরঘাট ও গাড়িঘাটে। নিত্যদিনের প্রচুর মানুষ নৌকা দিয়ে পারাপার করেছেন। যে কোন সময়ে ঘটে যেতে পারে বড় সড় দূর্ঘটনা। প্রাণহানির আশঙ্কা। তবু প্রশাসন নির্বিকার। জঙ্গিপুর পুরসভা থেকে প্রতি বছর ঘাট দুটি নিলামে দেওয়া হয় ঘাট মাঝি দের। আর সেই নিলামের টাকা তোলার জন্য ঘাট মালিকেরা এক সঙ্গে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করে নদী পারাপার করেন। বাধ্য হয়ে সাধারণ মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পারাপার করে চলেছেন।যাত্রীরা এবিষয়ে অভিযোগ জানালে ঘাট মালিক কিংবা মাঝিরা কোনও কর্ণপাত করেন না বলে যাত্রীদের অভিযোগ।

জঙ্গিপুরের বাসিন্দা, মালা গোস্বামী বলেন সেতু থেকে দুটি ঘাটের ঢিল ছোড়া দূরত্বে। সময় বাচাঁর কারণে সেতু দিয়ে না গিয়ে নৌকায় চেপে নদী পারাপার করাটা সুবিধাজনক।পুরসভার নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে নিত্য দিন ঘাট মালিকেরা নৌকায় চল্লিশ থেকে পঞ্চাশ জন যাত্রী নিয়ে পারাপার করেছেন। পুরসভার তরফে জানানো হয়েছে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয়েছে ঘাট দুটিতে একটি বড় নৌকায় ১৫ জনের বেশি যাত্রী পারাপার করা যাবে না।

এ প্রসঙ্গে জঙ্গিপুর পুরসভার পুরপিতা মৌজাহারুল ইসলাম বলেন নির্দেশ অমান্য করে যাত্রী পারাপার করলে দুর্ঘটনা ঘটলে ঘাট মালিক ও ঘাট মাঝির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঘাট মাঝিদের দাবি, উপায় না থাকায় নিলামের টাকা তুলতে এটা করতে হচ্ছে। আগে যাত্রী প্রতি ভাড়া ছিল এক টাকা। এখন তা করা হয়েছে দু টাকা। তবুও নিলামের টাকা উপার্জন করতে পারিনা। তাই সময় বাচাঁতে সেতু থাকলেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নিত্যযাত্রীদের চলছে নদী পারাপার রঘুনাথগঞ্জ ও জঙ্গিপুর শহরের মধ্যে ভাগীরথী নদীতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *