Wednesday, January 24, 2018
Home > রাজ্য > বাংলা ছাড়ার নিদান,অন্যদিকে মুকুলের ফাইট অব্যাহত, প্রকাশ করতে চলেছে বিস্ফোরক তথ্য!ফাঁসবে অভিষেকই

বাংলা ছাড়ার নিদান,অন্যদিকে মুকুলের ফাইট অব্যাহত, প্রকাশ করতে চলেছে বিস্ফোরক তথ্য!ফাঁসবে অভিষেকই

নিউজ ডেস্ক: মুকুল রায়কে এবার আইনি যুদ্ধে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর চ্যালেঞ্জ, ‘উনি যদি প্রমাণ করতে পারেন বিশ্ব-বাংলা ও জাগো বাংলা কোম্পানির মালিক আমি। তাহলে আমি রাজনীতির আঙিনাতেই পা রাখব না। আর প্রমাণ না করতে পারলে, ওনাকে বাংলা ছেড়ে চলে যেতে হবে।’সোমবার ব্যাঙ্কশাল আদালতে মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মানহানির মামলা রুজু করে অভিষেক জানিয়েছেন, ‘আমরা গণতান্ত্রিক পথে জামানত বাজেয়াপ্ত করে দেখিয়েছি, এবার আইনি লড়াইয়েও দেখিয়ে দেব। তিনি বলেন, মুকুল রায়কে বাংলা থেকে বিদায় নিতে হবে। ওনাকে রাজনৈতিকভাবে বাংলা ছাড়া করব।’
তাঁর কথায়, ‘আদালতের উপর, ভারতের বিচারব্যবস্থার উপর আমার সম্পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আমি কিছু কথা বললে কিছু মানুষ বিশ্বাস করবেন, কিছু মানুষ বিশ্বাস করবেন না। মুকুল রায়ও কিছু বললে কিছু মানুষ বিশ্বাস করবেন, কিছু মানুষ বিশ্বাস করবেন না। কিন্তু মহামান্য আদালত কিছু বললে, তা সবাই-ই বিশ্বাস করবেন।’
অভিষেক বলেন, ‘মুকুল রায় আদালতের নির্দেশ অমান্য করে আদালত অবমাননা করেছেন। সেই কারণ আদালত তাঁকে শোকজ করে। যেহেতু এই মামলা বিচারাধীন আমি এই মামলার বিষয়ে কিছু বলব না। যা বলার বলবেন আমার আইনজীবীরা। শুধু এটুকু বলতে পারি নেতা হিসেবে আমাকে অসম্মান করার জন্যই এসব বলা হচ্ছে। সময় এলেই তা পরিষ্কার হয়ে যাবে।’
উনি অভিযোগ করেছেন, ওনাকেই প্রমাণ করতে হবে। যদি প্রমাণ করতে পারেন আমার কোম্পানির সঙ্গে বিশ্ব-বাংলা ও জাগো বাংলার যোগ সূত্র রয়েছে, আমি রাজনীতির আঙিনাতেই পা রাখব না। আর তা না হলে, ওনাকেই বাংলা ছেড়ে যেতে হবে। উল্লেখ্য, গত ১০ নভেম্বর মুকুল রায় ধর্মতলায় বিজেপির সভা থেকে অভিষেকের বিরুদ্ধে প্রমাণ হাতে অভিযোগ খাড়া করেছিলেন। সেই অভিযোগে এতদিন আইনজীবীর মাধ্যমেই লড়াই ছুড়ে দিয়েছিলেন অভিষেক। এই প্রথম অভিষেক প্রকাশ্যে এসে সরাসরি মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন। মুকুল রায় সেই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে জানালেন, ভারতের যে কোনও আদালতে বিচার হোক, তিনি তৈরি। কোনও মিথ্যা অভিযোগ তিনি করেননি। কাগজ ছাড়া একটা কথাও তিনি বলেননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *