Wednesday, January 24, 2018
Home > রাজ্য > মুকুলকে জবাব মমতার

মুকুলকে জবাব মমতার

নিউজ ডেস্ক:দুপুরে রানি রাসমনি রোডের সভা থেকে উৎসব-সংস্কৃতি নিয়ে রাজ্য সরকারকে বিঁধলেন বিজেপির মুকুল রায়৷ আর তার ঠিক ঘণ্টা খানেক পর ওই সভাস্থল থেকে ঢিলছোড়া দূরত্বে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের মঞ্চে সেই কটাক্ষের জবাব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তিনি অবশ্য কারও নাম মুখে আনেননি৷ শুধু বলেছেন, উৎসব বাংলার সংস্কৃতির অংশ৷ আর তা করা হলে ক্ষতি কি! কেউ কেউ এ নিয়ে হিংসা করলেও বিভিন্ন ধরনের উৎসব যে রাজ্য সরকার চালিয়ে যেতে চায়, তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিদেশ সফর নিয়েও এদিন কটাক্ষ করেছেন মুকুল রায়৷ সেই প্রসঙ্গও এদিন এসেছে মুখ্যমন্ত্রীর কথায়৷ তিনি বলেছেন, বাংলা বিশ্বে ঘুরলে ক্ষতি কী?

তবে চলচিত্র উৎসবের মঞ্চে সরাসরি রাজনীতি টেনে আনেননি মুখ্যমন্ত্রী৷ রাজনীতির বিষয়ে ধরি মাছ না ছুঁই পানির উপরেই থেকেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ যদিও তাঁর কথাগুলির মাধ্যমে তিনি যে মুকুল রায়কেই জবাব দিয়েছেন, তা পরে স্বীকার করেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷

শুক্রবারের সভায় তৃণমূল কংগ্রেসকে কার্যত তুলোধনা করেন প্রাক্তন তৃণমূল নেতা ও বর্তমান বিজেপি কর্মী মুকুল রায়৷ বিজেপির সেই সভা শেষ হয়ে যাওয়ার ঘণ্টাখানেক পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গিয়েছিলেন চলচ্চিত্র উৎসবে৷ সেখানে অমিতাভ বচ্চনের বক্তৃতার পর মঞ্চে ওঠেন মুখ্যমন্ত্রী৷ কথা তিনি শুরু করেন বাংলার সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য দিয়ে৷ অমিতাভের কথার প্রসঙ্গে টেনে তিনি বলেন বাংলা বিশ্ব দরবারে অনেকদিন থেকেই উল্লেখযোগ্য জায়গা ধরে রেখেছে৷ কিশোর কুমার, হৃষিকেশ মুখোপাধ্যায়, হেমন্ত মুখোপাধ্যায় আসমুদ্রহিমাচলে সেই কীর্তি রেখে গিয়েছেন৷ কিন্তু এরপরই কার্যত মেজাজ হারান মুখ্যমন্ত্রী৷ বলেন, “যারা হিংসা করে করতে দিন৷”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *